যেমন হবে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা ফাইনালের একাদশ


লিওনেল স্কালোনির মূল ভরসা লিওনেল মেসি। প্রতিটি ম্যাচেই মেসিকে কেন্দ্র করে দল সাজান আর্জেন্টাইন কোচ। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বি ব্রাজিলের বিপক্ষে কৌশলটা একটু বদলানোর পরিকল্পনা তার। কারণ ব্রাজিলের আক্রমণভাগ শক্তিশালী বলে ঝড়টা বেশি যাবে রক্ষণের ওপর। যে কারণে রক্ষনে চারজনকে রেখে ফরমেশন সাজাবেন তিনি।

ব্রাজিলের বিপক্ষে ৪-২-৩-১ ফরমেশনে দলকে মাঠে নামানোর পরিকল্পনা স্কালোনির। সেই ক্ষেত্রে আক্রমণের মূল দায়িত্বটা বরাবরই পড়বে মেসির কাঁধে। শুধু গোল বানিয়ে দেওয়া নয়, গোল করার কাজটিও করতে হবে মেসিকে। আর ফরোয়ার্ড হিসেবে নামবেন লাউতারো মার্টিনেজ।

এই ম্যাচে মেসিকে ব্রাজিলিয়ানরা কড়া মার্কিংয়ে রাখবেন। তাই তার ওপর থেকে আক্রমণের ভার কমানোর জন্য গঞ্জালেসের চেয়ে অপেক্ষাকৃত সৃষ্টিশীল পাপু গোমেজকে মাঠে নামাতে পারেন স্কালোনি, যিনি আবার গঞ্জালেসের মতো অতটা নিচে নেমে রক্ষণে সাহায্য করতে চান না। সে ক্ষেত্রে কপাল খুলে যেতে পারে ট্যাগলিফিয়াকোর।

গোলপোস্টের সামনে ফাইনাল ম্যাচে নিশ্চিতভাবেই খেলবেন এমিলিয়ানো মার্টিনেজ। রক্ষণভাবগে নিকোলাস ওটামেন্ডিও থাকবেন। তার সাথে ফিওরেন্তিনার জার্মান পেৎসায়াকে একাদশে নিচ্ছেন স্কালোনি। দলের অন্যতম সেরা ডিফেন্ডার ক্রিশ্চিয়ানো রোমেরোকে পেতে শেষ সময় পর্যন্ত অপেক্ষা করবে আর্জেন্টিনা। হাঁটুর ইনজুরির কারণে শেষের ম্যাচগুলো খেলতে পারেননি তিনি।

মাঝমাঠে জিওভানি লো সেলসো ও লেয়ান্দ্র পারেদেসের যেকোন একজনকে নামানো হবে মাঠে। এ দুজনের যেকোনো একজনকে নামানো হবে মাঠে। এছাড়া অন্য দুইটি পজিশনে গুইদো রদ্রিগেজ ও রদ্রিগো ডি পলের থাকা নিশ্চিতই বলা চলে।

২০১৯ সালে আর্জেন্টিনার কাছে হারের পর কোচ তিতের অধীনে এখনো পর্যন্ত অপরাজেয় ব্রাজিল। এবারের কোপা আমেরিকায় দল নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করলেও প্রায় সব ম্যাচেই একই ফরমেশন ব্যবহার করেছেন তিতে। কোনো ম্যাচে দেখা গেছে ৪-৪-২ আবার কখনো বা ৪-২-৩-১ ফরমেশনে দলকে খেলিয়েছেন তিনি। রোববার আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ফাইনালেও এই দুটির যেকোনো একটি ফরমেশন প্রয়োগ করবেন ব্রাজিল কোচ।

চলতি টুনামেন্টে সবচেযে শক্তিশালী ব্যাকলাইন হলো ব্রাজিলের। অন্যদের তুলনায় ডিফেন্সও অনেক মজবুত। ফাইনালেও চার ডিফেন্ডার নিয়ে দল সাজাবেন তিনি। লিওনেল মেসিকে আটকানোর জন্য হয়তো দ্বায়িত্বটা পড়বে কাসেমিরোর কাঁধেই। কারণ রিয়াল মাদ্রিদের এ তারকা এল ক্লাসিকোতে বার্সেলোনা ফরোয়ার্ডকে কয়েকবারই আটকিয়েছেন।

আর নিজের প্রিয় পজিশনে খেলবেন নেইমার। ফাইনালে ব্রাজিলের মূল সমস্যা হলো নিষেধাজ্ঞার কারণে গ্যাব্রিয়েল জেসুসকে না পাওয়া। তার জায়গায় এই ম্যাচে ফিরমিনহোকে শুরুর একাদশে রাখতে পারেন তিতে।

আর্জেন্টিনার সম্ভাব্য একাদশ:

এমিলিয়ানো মার্টিনেজ, নাহুয়েল মোলিনা/গনজালো মন্টিয়েল, জার্মান পেজ্জেল্লা/ক্রিশ্চিয়ান রোমেরো, নিকোলাস ওটামেন্ডি, মার্কোস আকুনা/নিকোলাস তালিয়াফিকো, রদ্রিগো ডি পল, গুইদো রদ্রিগেজ, জিওভান্নি লো সেলসো/লেয়ান্দ্র পারেদেস, লিওনেল মেসি, লাউতারো মার্টিনেজ, অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া/নিকোলাস গনজালেজ।

ব্রাজিলের সম্ভাব্য একাদশ:

এডারসন মোরায়েস, দানিলো, রেনাল লোদি, মার্কুইনহোস, থিয়াগো সিলভা, ক্যাসেমিরো, ফ্রেড, লুকাস পাকুয়েতা, নেইমার, রিচার্লিসন ও এভারটন রিভেইরো।

Top
ঘোষনাঃ