জিম্বাবুয়ে সফরে টাইগারদের অনুশীলন শুরু


জিম্বাবুয়েতে একদিনের কোয়ারেন্টিন শেষ করে অনুশীলন শুরু করেছে বাংলাদেশ দল। প্রথম দিন থেকেই লাল বলে নিজেদের ঝালিয়ে নিচ্ছে টাইগার টেস্ট স্কোয়াড।

এরই মধ্যে হারারে পৌছেই অনুশীলনে যোগ দিয়েছেন সাকিব ও সাদমান। কন্ডিশন বিবেচনায় সিরিজটা সহজ হবে না বলছেন নির্বাচক আব্দুর রাজ্জাক।

করোনাকালে বাংলাদেশের তৃতীয় অ্যাওয়ে ট্যুর। নিউজিল্যান্ড আর শ্রীলঙ্কার মতো করোনা প্রটোকলে কঠিন নিয়ম রাখেনি জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট বোর্ড। মোটে একদিনের কোয়ারেন্টিন পিরিয়ড শেষ করেই অনুশীলনে নেমেছে টিম টাইগার্স।

ছুটি কাটিয়ে যুক্তরাষ্ট্র থেকে হারারেতে দলের সাথে যোগ দিয়েই অনুশীলনে নেমে পড়েছেন সাকিব আল হাসান। ভিসা জটিলতায় যেতে না পারা সাদমান ইসলামও যোগ দিয়েছেন টিমে।

টি টোয়েন্টি ফরম্যাটের ঢাকা লিগ খেলেই জিম্বাবুয়ে গেছে বাংলাদেশ দল। তবে পূর্ণাঙ্গ সিরিজের শুরুটা টেস্ট দিয়ে। তাইতো হারারে স্পোর্টস ক্লাব মাঠে লাল বলে নিজেদের ঝালিয়ে নিচ্ছেন মুমিনুলরা।

কন্ডিশন বিবেচনায় ঘরের মাঠে এগিয়ে যে কোন দল, জিম্বাবুয়েও এর বেতিক্রম নয়। তাইতো সিরিজটা সহজ হবে মানছেন দলের সঙ্গী নির্বাচক আব্দুর রাজ্জাক।

বিসিবির নির্বাচক আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘আমাদের জন্য বেশ কঠিন হবে। কারন এই কন্ডিশনটা আমাদের জন্য একেবারেই নতুন কিন্তু ওরা পুরাপুরি হেবিচুয়েটেড। ওরা আমাদের দেশে খেলতে গেলে যেভাবে আমরা ট্রিট করি পারি। আমি শিউর যে এখানে সেভাবে ট্রিট করলে খেলাটা কঠিন হবে।’

রোডেশিয়ান কন্ডিশন অনেকটা পেস সহায়ক। তবুও স্পিন দিয়েই স্বাগতিকদের কাবু করার পরিকল্পনা করছে টাইগার ম্যানেজমেন্ট। নয়া বোলিং পরামর্শক রঙ্গণা হেরাথের সাথে নিজেও মিরাজ, তাইজুল, নাঈমদের সহযোগিতা করছেন দেশসেরা স্পিনার রাজ্জাক।

বৃহস্পতি ও শুক্রবার ব্যাটে বলে ঝালিয়ে নেবে টাইগার টেস্ট স্কোয়াড। ৩ ও ৪ জুলাই লাল বলের একটা প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে তামিম-মুশিফিকরা। ৭ জুলাই একমাত্র টেস্ট শুরু আগে আরো দুই দিন অনুশীলনের সুযোগ পাবে বাংলাদেশ দল।

Top
ঘোষনাঃ